সোমবার, ২৩ মার্চ ২০২০, ০৪:৫৯ অপরাহ্ন

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি:
চাটগাঁ সময় পত্রিকায় চট্টগ্রাম মহানগর সহ বিভাগের আওতাধীন সকল জেলা, উপজেলা এবং কলেজ / বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে । যোগাযোগ : ০১৯৬৫-৬৫২৭৯৬ ।

প্রাণঘাতী করোনা লড়াইয়ে আলো জাগিয়েছে চীন : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ডেস্ক রিপোর্ট: প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে চীন আশার আলো জাগিয়েছে বলে মনে করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। কৌশল অবলম্বনের কারণে দেশটিতে গত চার দিনে স্থানীয়ভাবে একজন আক্রান্ত রোগীর খবর পাওয়া গেছে। এটাকেই উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হিসেবে দেখছে ডব্লিউএইচও’র প্রধান।

চীনের সফলতার ওপর জোর দিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রস আধানম গেব্রেইয়েসুস বলেন, চীনের সফলতা বাকি বিশ্বের জন্য আশার আলো দিচ্ছে।



ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে জানানো হয়, গত বছরের ডিসেম্বরে দেশটির হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ার পর যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়, তা থেকে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। তবে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে চীনের কৌশল অন্য দেশগুলো বিশেষ করে পশ্চিমা দেশগুলোর বেলায় ব্যবহার করা যায় কি না, এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

চীন কেন্দ্রনিয়ন্ত্রিত একদলীয় শাসনব্যবস্থার এমন দেশ, যেখানে ভিন্নমতের স্থান নেই এবং যেকোনো ইস্যুতে বিপুল পরিমাণের সম্পদ, লোকবলে রাতারাতি পরিবর্তন ঘটাতে পারে। চীনের যেসব বিষয় আলোচনা হচ্ছে, তার মধ্যে রয়েছে- অবরুদ্ধ ও নিয়ন্ত্রণব্যবস্থা, মাস্ক পরিধান, গণকোয়ারেন্টিন, সংহতি ইত্যাদি।

অবরোধ ও নিয়ন্ত্রণ:

গত জানুয়ারি মাসে চীন উহান শহরকে কার্যকরভাবে অবরুদ্ধ করে এবং এর ১ কোটি ১১ লাখ জনসংখ্যাকে কোয়ারেন্টিনে পাঠায়। এই প্রক্রিয়া পরে অনুসরণ করা হয় পুরো হুবেই প্রদেশের জন্য। পাঁচ কোটি মানুষকে গণ আইসোলেশনে পাঠায়। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মানুষকে কঠোরভাবে বাড়িতে থাকার ব্যাপারে উৎসাহিত করা হয়।



গণসংহতি:

পিকিং ইউনিভার্সিটির জনস্বাস্থ্য বিষয়ের অধ্যাপক ঝেং জিজিই বলেছেন, হুবেই প্রদেশে কমপক্ষে ৪২ হাজার চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের হুবেই প্রদেশে পাঠানো হয় স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার জন্য। এ সময় ৩ হাজার ৩০০ স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হন এবং ১৩ জন মারা যান।

মাস্ক ও সতর্কতা:

শহরগুলোয় মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তা ব্যাপকভাবে দেখা দেয়। অধ্যাপক ঝেংজিজিই বলেন, বিপুলসংখ্যক মানুষের ভাইরাসটি বহনের আশঙ্কার মধ্যে ব্যাপক হারে মাস্ক ব্যবহার ভাইরাসের বিস্তার রোধ করতে পারে।



বার্তা সংস্থা সিনহুয়ার খবর অনুসারে, চীন প্রতিদিন ১৬ লাখ মাস্ক উৎপাদন করেছে ওই সময়। উচ্চপ্রযুক্তির দেশটিতে ব্যক্তিগত গোপনীয়তা রক্ষার বিষয়টি যেখানে সীমিত, সেখানে কোনো কোনো স্থানীয় কর্তৃপক্ষ নাগরিকদের জন্য ফোনে কিউআর কোড দেখানোর ব্যবস্থা করে। যেটি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার পরিস্থিতির ভিত্তিতে তাদের ‘সবুজ’, ‘হলুদ’ এবং ‘লাল’ চিহ্ন দেখায়। এর মাধ্যমে নাগরিকদের দেখানো হয়, তারা বেশি ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় যাচ্ছেন কিনা।

সংবাদটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার করুন...





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



















© All rights reserved © 2019 Chatga Somoy
Design & Developed BY N Host BD